শনিবার, ডিসেম্বর ২৫, ২০২১

শিরোনাম >>
আম্পায়ারদের হেয়ারিং টেস্ট করা হবে

বাংলাদেশ ক্রিকেটে আম্পায়ারিং ব্যবস্থা ঢেলে সাজানো হবে- মিঠু

ডেস্ক রিপোর্ট   |   শনিবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০২১ | 63 বার পঠিত | প্রিন্ট

বাংলাদেশ ক্রিকেটে আম্পায়ারিং ব্যবস্থা ঢেলে সাজানো হবে- মিঠু

প্রথমবারের মত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক নির্বাচিত হয়ে জ্যেষ্ঠ ক্রিকেট সংগঠক ইফতেখার রহমান মিঠু পেয়েছেন গুরুত্বপূর্ণ বিভাগ আম্পায়ার্স কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব। বিগত কয়েক বছর ধরে দেশের ক্রিকেটের আম্পায়ারিংয়ের মান নিয়ে অনেক আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে। মিঠুন দায়িত্ব পেয়েই পক্ষপাতমূলক আম্পায়ারিং বন্ধের ঘোষণা দিয়েছেন।

আম্পায়ার কমিটির নবনিযুক্ত চেয়ারম্যান জানান, তার অধীনে আম্পায়ারিংয়ে ইচ্ছাকৃত কোনো ভুল দেখা যাবে না।

মিঠু বলেন, ‘আমি ঘোষণা করছি, ক্লাব বা কারও চাপে এখন আম্পায়ারিংয়ে ত্রুটি হবে না, অন্তত আমি থাকাকালে। এই সাপোর্ট আমি চেয়ারম্যান হিসেবে দিব। আম্পায়ারদের আই টেস্ট করাতে হবে, হিয়ারিং টেস্ট করাতে হবে। এসব নিয়ে নতুন করে সুগঠিত করতে হবে।’

পক্ষপাতমূলক আম্পায়ারিংয়ের পেছনে আছে ক্লাবগুলোর প্রভাব বিস্তারের নিন্দনীয় চর্চা। ঘোষণা দিয়ে আম্পায়ারিংয়ের ত্রুটি দূর করা তাই সহজ কাজ নয়। মিঠুও তা মানছেন। তিনি নিজেও ক্লাব ক্রিকেটে সঙংগঠকের ভূমিকায় আছেন প্রায় ৩০ বছর ধরে।

মিঠু বলেন, ‘চ্যালেঞ্জ তো অবশ্যই আছে। কারণ গত কিছু বছর ধরে আম্পায়ারিং একটা বার্নিং ইস্যু ছিল। সবার সাথে কথা বলে সমস্যা খুঁজে বের করে সমাধানের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব। সবকিছুরই তো সমাধানের একটা উপায় আছে। পূর্ণ মনোযোগ দিয়ে সেটাই করব।’

শুধু পক্ষপাতমূলক আম্পায়ারিং নয়, একইসাথে ভুল আম্পায়ারিং বন্ধের জন্যও সচেষ্ট থাকবেন বলে জানিয়েছেন মিঠু। সেজন্য গণমাধ্যম থেকে শুরু করে সব পর্যায় থেকে পরামর্শ নেওয়া হবে। এছাড়া সাবেক ক্রিকেটারদের আম্পায়ারিং পেশায় যুক্ত করার প্রত্যাশাও ব্যক্ত করেছেন। তার মতে, এতে দেশের আম্পায়ারিংয়ের মান বৃদ্ধি পাবে।

তিনি বলেন, ‘খারাপ সিদ্ধান্ত দুই রকমের হয়। একটা ইচ্ছাকৃত, একটা ভুল। আম্পায়াররা ভুল সিদ্ধান্ত দেয় ধরে নিলাম, সেটা শুধরাতে নানান ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করতে হবে। আগের চেয়ে কিছুটা উন্নত হয়েছে। আরও উন্নত করব। কিছু খেলোয়াড়কে যুক্ত করার চেষ্টা করব। খেলোয়াড়রা আম্পায়ারিংয়ে আসলে অটোমেটিক আম্পায়ারিংয়ের মান উন্নত হবে। আমরা গণমাধ্যমের কাছ থেকেও পরামর্শ নিব। এটা তো রকেট সাইন্স না। সবাই পরামর্শ দিতে পারবে।’

‘সমস্যা সমাধানের জন্য গভীরে যেতে হয়। আমার প্রথম কাজই হল সমস্যা খুঁজে বের করা। আমার প্রথম ১৫ দিনের কাজ হল সমস্যাগুলোর তালিকা তৈরি করা।’

বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি মিঠুর বেশ কাছের বন্ধু। ভারতের সাবেক ও অন্যতম সফল এই অধিনায়ক তার আত্মজীবনীতে মিঠুকে উল্লেখ করেছিলেন ‘পরিবারের একজন’ হিসেবে। মিঠু দ্বিতীয় বিভাগের ক্লাব ফিয়ার ফাইটার্স থেকে বিসিবি নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সময়ও ছিল সৌরভের সমর্থন।

সৌরভের বোর্ডের অধীনে নিজেদের গড়ে তোলা ভারতের আম্পায়াররা বৈশ্বিক ক্রিকেটে নিজেদের অবস্থান শক্ত করতে পারলেও আজ পর্যন্ত বাংলাদেশের একজন আম্পায়ারও আইসিসির এলিট প্যানেলে জায়গা করতে পারেননি। আম্পায়ারিংয়ের মান উন্নতির জন্য সৌরভের সহায়তা নেবেন মিঠু, প্রয়োজনে দ্বারস্থ হবেন আইসিসিরও, কিংবা আম্পায়ারিংয়ে সফলতা দেখানো অন্যান্য দেশের।

তিনি বলেন, ‘শুধু সৌরভ গাঙ্গুলি নয়, দরকার হলে অস্ট্রেলিয়া, আইসিসি থেকে সহায়তা নিয়ে কাজ করব। গাইডলাইন পাল্টাতে হলে পাল্টাব। শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনব। যতটা নতুন পদ্ধতি প্রয়োগ করা যায়।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১১:৩৩ পিএম | শনিবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০২১

manchitronews.com |

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

A H Russel Chief Editor
বার্তা ও সম্পাদকীয় কার্যালয়

5095 Buford Hwy, Suite H Doraville, Ga 30340

E-mail: editor@manchitronews.com