• শিরোনাম

    ‘সন্তানরা আরেকবার রাস্তায় নামলে কারও পিঠে চামড়া থাকবে না’

    মানচিত্র ডেস্ক | ২১ নভেম্বর ২০১৯ | ২:১২ অপরাহ্ণ

    ‘সন্তানরা আরেকবার রাস্তায় নামলে কারও পিঠে চামড়া থাকবে না’

    ছবি সংগৃহীত

    সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ে বিভিন্ন পক্ষকে সাবধান করে দিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম। ঢাকার রাজারবাগ পুলিশ লাইনে বৃহস্পতিবার এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন ‘আমাদের সন্তানরা আরেকবার রাস্তায় নামলে পুলিশ, গাড়ি মালিক-শ্রমিক কারও পিঠে চামড়া থাকবে না। তাই সাবধান হোন। আইন মেনে চলুন।’

    ঢাকার কুর্মিটোলায় বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর প্রতিবাদে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনে নামেন বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা। তাদের ওই আন্দোলনের সময় কয়েকদিন কার্যত অচল থাকে রাজধানীর রাজপথ। বিভিন্ন সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভের পাশাপাশি ছাত্ররা পুলিশের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে গাড়ি থামিয়ে চালকদের লাইসেন্স চেক করে তারা। তা দেখাতে না পারলে গাড়ির চাবিও আটকে রাখে তারা। বাদ যায়নি বিভিন্ন সরকারি সংস্থার বেশ কয়েকটি গাড়িও।

    এমনকি উল্টো পথ দিয়ে যাওয়ার সময় ওই সময়ের বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের গাড়িও শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে পড়ে। মন্ত্রীর সামনেই শিক্ষার্থীরা স্লোগান দেয়- ‘আইন সবার জন্য সমান’। তোলপাড় করা শিক্ষার্থীদের ওই আন্দোলনের পর সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ প্রণয়ন করে সরকার। সম্প্রতি কার্যকর হওয়া এই আইনের কয়েকটি ধারা নিয়ে আপত্তি জানিয়ে আসছেন পরিবহন শ্রমিকরা।

    নতুন সড়ক পরিবহন আইন মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে না পারলে আমাদের যাওয়ার কোনো পথ থাকবে না। এটিই শেষ সুযোগ। কাজেই সবাইকে শৃঙ্খলা মানতে হবে। যার যার জায়গা থেকে এগিয়ে আসতে হবে। চালকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আমার আপনার কারণে এমন একজন মারা গেল, যে পরিবারে দুজন শিশু রয়েছে। তাদের খাবার দেয়ার কেউ নেই। আমরা সবকিছু আলোচনা করে সমাধান করতে পারব। কিন্তু একজন সন্তানের চোখের পানির দাম কেউ দিতে পারব না।’

    ‘অরাজক পরিস্থিতি আর কতদিন মানবেন? এ অরাজকতার কারণে অনেক চালক এভাবে চলে গেছেন। তাদের পরিবারেও কেউ না কেউ আছে। কেউ তাদের খোঁজ নিয়েছেন? তাদের মা, স্ত্রী-সন্তান হয়ত কষ্টে দিন কাটাচ্ছেন। তাই আসুন আমরা সবাই শৃঙ্খলা মেনে চলি।’

    সড়কে পাল্লা দেয়ার বিষয়ে কথা বলেন ডিএমপি কমিশনার। বলেন, ‘রাস্তায় আমরা যারা নামি তাদের প্রত্যেকই সবার আগে যেতে চাই। বাকিরা পেছনে পড়ে থাকে। এই মানসিকতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। আইনকে শ্রদ্ধা করে স্ব স্ব জায়গা থেকে সবাইকে আইন মানতে হবে।’

    ডিএমপির ট্রাফিক সচেতনতামূলক পক্ষ ২০১৯-এর উদ্বোধন উপলক্ষে অনুষ্ঠানটির আয়োজন করা হয়। ট্রাফিক সচেনতামূলক পক্ষকালব্যাপী এই কর্মসূচি আজ থেকে শুরু হয়ে ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে। ডিএমপি কমিশনারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিশেষ অতিথি ছিলেন।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ভিপি নুরের বিলাসী জীবন!

    ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯

    পৃথিবীর যে দেশে কোন সাপ নেই?

    ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

    আর্কাইভ

    সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
  • ফেসবুকে আমরা