• শিরোনাম

    শ্রদ্ধা ভালবাসায় সিক্ত আবুল মকসুদ অন্তিমশয্যায়

    মানচিত্র ডেস্ক | ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ | ১:০৪ অপরাহ্ণ

    শ্রদ্ধা ভালবাসায় সিক্ত আবুল মকসুদ অন্তিমশয্যায়

    শেষযাত্রায় শ্রদ্ধা ভালবাসায় সিক্ত হয়ে আজিমপুর কবরস্থানে অন্তিমশয্যায় শায়িত হয়েছেন প্রথিতযশা লেখক, গবেষক, সাংবাদিক, কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ। জাতীয় প্রেস ক্লাব এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদে জানাজার পর বুধবার বাদ মাগরিব তাকে দাফন করা হয়। দাফনের আগে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মহাত্মা গান্ধীর অহিংস নীতির অনুসারী সৈয়দ মকসুদকে বিদায়ী শ্রদ্ধা জানান সর্বস্তরের মানুষ।

    তিন চারদিন জ্বরে ভুগে তীব্র শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত হয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মৃত্যুবরণ করেন সৈয়দ আবুল মকসুদ। রাতে ধানমন্ডির তাকওয়া মসজিদে প্রথম জানাজা শেষে তার মরদেহ রাখা হয় স্কয়ার হাসপাতালে। সেখান থেকে দুপুরে দীর্ঘদিনের আড্ডাস্থল জাতীয় প্রেস ক্লাবে শেষবারের মতো নেওয়া হয় আবুল মকসুদকে।

    সেখানে বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠন প্রয়াত আবুল মকসুদকে ফুলেল শ্রদ্ধা জানায়। জানাজায় অংশ নেন প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান, যুগ্ম সম্পাদক মাইনুল আলম, আশরাফ আলী, কোষাধ্যক্ষ শাহেদ চৌধুরী, সাবেক সভাপতি শওকত মাহমুদ, বিএফইউজের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আবদুল মজিদ, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সভাপতি মোরসালিন নোমানী, সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান খান প্রমুখ। বিএনপি নেতা ইশরাক হোসেন দলের পক্ষে জানাজায় উপস্থিত ছিলেন।

    জানাজার আগে আবুল মকসুদের ছেলে নাসিফ মাকসুদ প্রয়াত বাবার রুহের মাগফেরাত কামনা করে সবার দোয়া চান। তিনি বলেন, সৈয়দ আবুল মকসুদ সারাজীবন দেশের মানুষের জন্য কাজ করেছেন, লিখেছেন। প্রেস ক্লাব সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন স্মৃতিচারণ করে বলেন, আবুল মকসুদ নিরপেক্ষভাবে বিশ্নেষণ করে কলাম লিখতেন।

    প্রেস ক্লাব থেকে আবুল মকসুদের মরদেহ নেওয়া হয় শহীদ মিনারে। সেখানে জাতীয় পতাকায় তার কফিন আচ্ছাদিত করেন কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক। এসময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সংস্কৃতি সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ূয়া।

    ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মসজিদে শেষ জানাজার পর সেখানে আবুল মকসুদের মেয়ে জিহাদ মকসুদ ভারত থেকে এসে পৌঁছান। তার অপেক্ষায় ছিল বাবার পার্থিব দেহ। মেয়ের কাছ থেকে শেষ বিদায় নিয়ে আজিমপুরে শায়িত হন আমৃত্যু সামাজিক আন্দোলনে সক্রিয় এবং অন্যায় অত্যাচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার লেখক আবুল মকসুদ।

    শেষ জানাজায় অংশ নেন কৃষিমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক, তেল গ্যাস রক্ষা কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন, সিপিবির কেন্দ্রীয় নেতা রুহিন হোসেন প্রিন্স, গণসংহতি আন্দোলনের জুনায়েদ সাকী, বাসদের রাজেকুজ্জামান রতন, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের যুগ্ম সম্পাদক স্থপতি ইকবাল হাবিব, মহাত্মা গান্ধী স্মারক সদস্যের সমন্বয়ক হুমায়ুন কবির সুমন প্রমুখ।

    আবুল মকসুদের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ বুধবারও অব্যাহত ছিল। শোক প্রকাশ করেছেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম, প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইমরান আহমদ, সুশসানের জন্য নাগরিক (সুজন) সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদারসহ বিশিষ্টজন। শোক জানিয়েছে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি, বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র, আইন ও সালিশ কেন্দ্রসহ বিভিন্ন দল ও সংগঠন।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ভিপি নুরের বিলাসী জীবন!

    ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯

    আর্কাইভ

    সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আমরা

  • You cannot copy content of this page