• শিরোনাম

    শিগগিরই চালু হতে যাচ্ছে ঢাকা-নিউইয়র্ক ফ্লাইট

    মানচিত্র ডেস্ক | ০৩ অক্টোবর ২০২০ | ৩:১৭ অপরাহ্ণ

    শিগগিরই চালু হতে যাচ্ছে ঢাকা-নিউইয়র্ক ফ্লাইট

    প্রতীকি ছবি

    ঢাকা থেকে নিউইয়র্ক সরাসরি ফ্লাইট চালু এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। বুধবার সচিবালয়ে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে এ সংক্রান্ত আনুষ্ঠানিক চুক্তি হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এখন মার্কিন নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফেডারেল এভিয়েশন অথরিটির-এফএএ অনুমোদন পেলেই ফ্লাইট শুরু করা যাবে।

    ১৯৯৩ সালে ঢাকা থেকে নেদারল্যান্ডসের আমস্টারডাম হয়ে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে ফ্লাইট শুরু করে বিমান। পরে ডিসি-টেন উড়োজাহাজ ব্যবহার করে সপ্তাহে তিন দিন ঢাকা থেকে দুবাই এবং বেলজিয়ামের ব্রাসেলস হয়ে নিউ ইয়র্ক যাচ্ছিলো ফ্লাইট।

    ২০০৬ সালে নিরাপত্তার অজুহাতে বাংলাদেশকে ক্যাটাগরি-২ এ অবনমন করে মার্কিন নিয়ন্ত্রক সংস্থা এফএএ। পরে বন্ধ হয়ে যায় বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র সরাসরি ফ্লাইট চলাচল।

    ক্যাটাগরি-১ মান ফিরে পেতে ২০০৮ সালে মার্কিন উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িংয়ের সাথে ১০ টি উড়োজাহাজ কিনতে চুক্তি করে বিমান। এরই মধ্যে উড়োজাহাজগুলো যুক্ত হয়েছে বিমানের বহরে। এর মধ্যে রয়েছে চারটি বোয়িং ট্রিপল সেভেন, দুটি সেভেন এইট সেভেন ও চারটি সেভেন এইট সেভেন ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজ। এর বাইরে আরও দুটি ড্রিমলাইনার কেনে বিমান।

    ১৬ বছর পর আবারো ফ্লাইট চালুর চুক্তি হলো বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে। এরই মধ্যে এফএএ-এর সব শর্ত পূরণ করেছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ। এখন অপেক্ষা এফএএ এর চূড়ান্ত অনুমোদনের। এখনই ফ্লাইট শুরু করা না গেলেও বিমান যোগাযোগের ক্ষেত্রে একে একধাপ উন্নতি মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

    ২০০৬ সালের আগ পর্যন্ত নিউ ইয়র্ক রুটের প্রতি ফ্লাইটে ৩৫ লাখ টাকা করে লোকসান গুনেছে বিমান। তবে সংস্থাটির দাবি, বোয়িং-সেভেন এইট সেভেন ড্রিমলাইনার অন্য উড়োজাহাজের তুলনায় ২৫ শতাংশ জ্বালানি সাশ্রয়ী আর টানা ১৬ ঘণ্টা উড়তে সক্ষম হওয়ায় এই রুটে খুলছে নতুন সম্ভাবনার দুয়ার।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ভিপি নুরের বিলাসী জীবন!

    ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯

    আর্কাইভ

    সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আমরা