• শিরোনাম

    ‘যৌন দৃশ্যের শুটিংয়ে বাবা-ভাইয়ের কথা ভেবে কাঁদছিলাম’

    মানচিত্র ডেস্ক | ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ | ১২:৩৪ অপরাহ্ণ

    ‘যৌন দৃশ্যের শুটিংয়ে বাবা-ভাইয়ের কথা ভেবে কাঁদছিলাম’

    জনপ্রিয় হলিউড অভিনেত্রী সালমা হায়েক নিয়মিতভাবেই সংবাদ শিরোনাম হয়ে থাকেন। সুন্দর চেহারা আর আকর্ষণীয় ফিগারের অধিকারী মেক্সিকান-লেবানিজ নায়িকা যা করেন তাই লুফে নেন বিশ্বজুড়ে তার কোটি কোটি ভক্তরা। ২০১৭ সালে তিনি জানান, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের ডেটিং প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছিলেন তিনি।

    সালমা হায়েকের সবচেয়ে আলোচিত কাজ ফ্রিদা মুভিতে মেক্সিকান চিত্রশিল্পী ফ্রিদা কাহলোর ভূমিকায় অভিনয় করা হলেও বাংলাদেশে তিনি ডেসপেরাডো মুভি দিয়ে লাখো তরুণের হৃদয় জয় করেছেন। এবার সেই ডেসপেরাডো মুভিতে জনপ্রিয় নায়ক এন্টনিও ভ্যান্ডারেসের বিপরীতে বহুল আলোচিত যৌন দৃশ্যে অভিনয় করা নিয়ে মুখ খুলেছেন সালমা হায়েক।

    সোমবার অনুষ্ঠিত জনপ্রিয় সাপ্তাহিক পডকাস্ট আর্মচেয়ার এক্সপার্টে সালমা হায়েক বলেন, মুভিতে চুক্তিবদ্ধ হবার সময় আমি জানতান না তাতে যৌন দৃশ্য রয়েছে। মুভির কাজ শুরু হওয়ার পরই আমি সেটা জানতে পারি। ছবির পরিচালক রদ্রিগেজ আমার ভাইয়ের মতো আর তার (তখনকার) স্ত্রী এলিজাবেথও আমার বেস্ট ফ্রেন্ড ছিল। বলা হয়, ওই দৃশ্যের শুটিংয়ের সময় শুধু আমরা চারজনই সেটে থাকবো।

    স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন, ‘যখন আমরা শুটিং শুরু করতে যাচ্ছিলাম, তখন আমি কাঁদতে শুরু করি। আমি জানি না যে আমি কি এটা করতে পারবো! আমার ভয় করছে! যেসব কারণে ভয় পেয়েছিলাম তার মধ্যে অন্যতম হল ভ্যান্ডারেস।

    সে ছিল নিপাট ভদ্রলোক এবং খুব ভালো এবং আমরা এখনও খুব কাছের বন্ধু। কিন্তু সে খুব ফ্রি ছিল। এটি আমাকে ভয় পাইয়ে দেয় যে তার জন্য এসব করা কোন ব্যাপারই না। আমি কাঁদতে শুরু করেছিলাম এবং তার ভাবখানা ছিল ‘ওহ গড! তোমার কারণে আমার খুব খারাপ লাগছে। আমি এতটাই বিব্রত হয়েছিলাম যে আমি কাঁদছিলাম।’

    সালমা হায়েক বলতে থাকেন, ‘আমি তোয়ালেটা ছাড়তে দিচ্ছিলাম না। জানতাম, তারা আমাকে হাসানোর চেষ্টা করবে। আমি দুই সেকেন্ডের জন্য তোয়ালে খুলবো এবং আবার কান্নাকাটি শুরু করবো, এমন একটা অবস্থা। যাই হোক, আমরা কাজটা করি। শেষে আমরা ওই মুহুর্তে যা করা সম্ভব তার সেরাটাই করেছি। আসলে আপনি যখন নিজের মধ্যে থাকেন না, তখন আপনি এটা করতে পারেন। কিন্তু আমি আমার বাবা এবং ভাইয়ের কথা চিন্তা করছিলাম, তারা কি এটা দেখতে পাবে? তাদের কি লোকে টিজ করবে? ছেলেদের ক্ষেত্রে তা হয় না। বাবারা হয়তো বলেন, হ্যাঁ! এই যে, ও আমার ছেলে!’

    বাবা এবং ভাইকে নিয়ে ছবিটি দেখতে যাবার কথা স্মরণ করে সালমা হায়েক বলেন, তারা ওই দৃশ্যটির সময় থিয়েটার থেকে বেরিয়ে যায় এবং সেটা শেষ হয়ে গেলে আবার ফিরে আসে।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ভিপি নুরের বিলাসী জীবন!

    ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯

    আর্কাইভ

    সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
  • ফেসবুকে আমরা

  • You cannot copy content of this page