• শিরোনাম

    ট্রাম্পের অভিশংসন বিচার অবশ্যই হওয়া উচিত- বাইডেন

    মানচিত্র ডেস্ক | ২৬ জানুয়ারি ২০২১ | ২:১৮ অপরাহ্ণ

    ট্রাম্পের অভিশংসন বিচার অবশ্যই হওয়া উচিত- বাইডেন

    ফাইল ছবি

    সদ্য সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিশংসন বিচার অবশ্যই হওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। দায়িত্বগ্রহণের পর অভিশংসন বিষয়ক প্রথম বিস্তৃত বক্তব্যে বাইডেন বলেন, ‘আমি মনে করি এটি (অভিশংশন বিচার) ঘটা উচিত’। সোমবার সন্ধ্যায় পশ্চিম উইংয়ের হলে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনকে দেওয়া সংক্ষিপ্ত এক সাক্ষাৎকারে এ মন্তব্য করেন বাইডেন। খবর সিএনএনের

    অভিশংসন বিচার হলে আইনসভার এজেন্ডা এবং মন্ত্রিপরিষদের মনোনীতদের ওপর এর প্রভাব পড়তে পারে বলে স্বীকার করেছেন বাইডেন। কিন্তু তিনি এও বলেছেন, যদি তা না হয়, তাহলে আরও খারাপ প্রভাব ফেলতে পারে। বাইডেন বলেন, আমি মনে করি ডোনাল্ড ট্রাম্পের মেয়াদ ছয় মাস বাকি থাকলে অভিশংসন বিচারের ফলাফল ভিন্ন হত। কিন্তু এখন ট্রাম্পকে দোষী সাব্যস্ত করার জন্য ১৭ জন রিপাবলিকান সিনেটর ভোট দেবেন বলে মনে করেন না তিনি।

    সিনেটের পুরোনো দিনের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করে প্রেসিডেন্ট বাইডেন বলেন, সিনেট বদলে গেছে। আমি যখন ছিলাম, তার থেকে বদলে গেছে। কিন্তু এতটা বদলায়নি। বাইডেন এমন একটা সময় এ মন্তব্য করেন, যখন ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিশংসন বিচারপ্রক্রিয়ার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। সোমবার সন্ধ্যায় সিনেটে দ্বিতীয় অভিশংসন প্রস্তাবটির দলিল হস্তান্তর করেছেন অভিশংসন ব্যবস্থাপকরা।

    নির্বাচনে ভোট জালিয়াতির ভুয়া দাবি, নির্বাচনব্যবস্থাকে দুর্নীতিগ্রস্ত করার প্রয়াসসহ জানুয়ারির শুরুতে ক্যাপিটল হিলে হামলার জন্য সমর্থকদের উসকানি দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে ট্রাম্পের অভিশংসন প্রস্তাবে। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম দ্বিতীয়বার অভিশংসিত হতে যাচ্ছেন সদ্য সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

    খবরে বলা হয়েছে, সোমবার প্রতিনিধি পরিষদের অভিশংসন ব্যবস্থাপকরা ক্যাপিটলে হামলার প্রতিবাদে কালো মাস্ক পরে দুইজন দুইজন করে সিনেটে প্রবেশ করেন। তাদের নেতৃত্বে ছিলেন ডেমোক্র্যাট কংগ্রেসম্যান মেরিল্যান্ডের প্রধান অভিশংসন ব্যবস্থাপক জ্যামই রাসকিন। সিনেট ফ্লোরে অভিশংসন প্রস্তাব পাঠ করেন তিনিই।

    অভিশংসনের বিচারপ্রক্রিয়ার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হওয়ার পর সিনেটে ভিন্নতা এসেছে। সিনেটের দীর্ঘকালীন পরিবেশনাকারী একজন ডেমোক্র্যাট এ বিচারে সভাপতিত্ব করবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে ডেমোক্র্যাটরা এখনও বিচার প্রক্রিয়ায় সাক্ষীদের অনুসরণ করবেন কি-না, তা নিয়ে ভাবছেন। এজন্য ফেব্রুয়ারির কিছুটা সময় নিতে পারেন তারা।

    সিনেটে অভিশংসন দণ্ড কার্যকর হলে ট্রাম্পের আগামী নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার পথ বন্ধ হয়ে যাবে। অভিশংসন বিচারপ্রক্রিয়ার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট দুইটি সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ট্রাম্পের দ্বিতীয় অভিশংসনে প্রধান বিচারপতি জন রবার্টস সভাপতিত্ব করতে পারবেন না। কারণ তিনি প্রথম অভিশংসনে সভাপতিত্ব করেছিলেন।

    সূত্র দুটি এও জানিয়েছে, প্রধান বিচারপতির পরিবর্তে সিনেটে প্রেসিডেন্টের প্রো টেম্পোর (ডেপুটি স্পিকার), সিনেটে সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে থাকা সেন প্যাথ্রিক লিহে এ বিচারপ্রক্রিয়ায় সভাপতিত্ব করবেন বলে আশা করা যাচ্ছে। সংবিধান বলছে, অভিশংসন বিচারকের মুখোমুখি ব্যক্তি যদি আমেরিকার বর্তমান প্রেসিডেন্ট হন, তাহলে প্রধান বিচারপতি সভাপতিত্ব করবেন। এছাড়া অন্যান্য ক্ষেত্রে সিনেটররা সভাপতিত্ব করবেন।

    অভিশংসন আদালতে সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের আইনজীবীরাও অংশ নেবেন। তবে এখন পর্যন্ত তার আইনজীবী দলের সদস্যদের নাম পাওয়া যায়নি।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ভিপি নুরের বিলাসী জীবন!

    ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯

    আর্কাইভ

    সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আমরা

  • You cannot copy content of this page