• শিরোনাম

    ঘরের কাজের জন্য সাবেক স্ত্রীকে পারিশ্রমিক দিতে আদালতের রায়!

    মানচিত্র ডেস্ক | ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ | ১:১৩ অপরাহ্ণ

    ঘরের কাজের জন্য সাবেক স্ত্রীকে পারিশ্রমিক দিতে আদালতের রায়!

    প্রতীকি ছবি

    নারীরা সারাজীবন ধরে সংসার সামলানো, সন্তান পালন থেকে শুরু করে গৃহস্থালির নানা কাজ করেন। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এ ধরনের কাজের কোনো মূল্যায়ন হয় না। বিনা পারিশ্রমিকেই সারাজীবন তারা এসব কাজ করে যান। সম্প্রতি এমন গৃহকর্মের জন্য সাবেক স্ত্রীকে পারিশ্রমিক দেওয়ার যুগান্তকারী রায় দিয়েছেন আদালত।

    ব্যতিক্রমী ঘটনাটি ঘটেছে চীনের বেইজিংয়ে। আদালতের রায় অনুযায়ী, ওই নারী পাঁচ বছরের বিবাহিত জীবনে করা গৃহস্থালি কাজের জন্য চীনা মুদ্রায় ৫০ হাজার ইউয়ান পাবেন। বাংলাদেশি মুদ্রায় এর পরিমাণ প্রায় সাড়ে ৬ লাখ টাকা (১ ইউয়ান = ১৩ টাকা ধরে)। খবর বিবিসির। চীনে নতুন সিভিল কোড প্রবর্তনের পর সোমবার এই রায় ঘোষণা করা হয়।

    তবে এরই মধ্যে দেশটির অনলাইন মাধ্যমে আদালতের ওই রায় নিয়ে নানা বিতর্ক শুরু হয়েছে। কেউ কেউ গৃহকর্মের জন্য অর্থের এই পরিমাণ খুব সামান্য দাবি করেছেন। আদালতের রেকর্ড অনুসারে, চেন নামের ওই ব্যক্তি ২০১৫ সালে বিয়ে করেন। গত বছর তিনি তার স্ত্রী ওয়াংয়ের সঙ্গে বিচ্ছেদের জন্য আদালতে আবেদন করেন।

    ওয়াং প্রথমে বিচ্ছেদের ব্যাপারে রাজি ছিলেন না। কিন্তু পরে তিনি আর্থিক ক্ষতিপূরণের মাধ্যমে এই বিচ্ছেদে সায় দেন। ওয়াংয়ের দাবি, তার স্বামী চেন কখনও বাড়ির কোনো কাজে তাকে সাহায্য করেননি। এমনকি তাদের ছেলের লালনপালনের ব্যাপারেও কোনো দায়িত্ব পালন করেননি।

    ওয়াংয়ের আবেদনের প্রেক্ষিতে বেইজিংয়ের ফাংশান জেলা আদালত তার পক্ষে রায় দেন। এতে গৃহকর্মের জন্য ওয়াংয়ের স্বামীকে মাসিক প্রাপ্য হিসেবে তাকে ২ হাজার ইউয়ান এবং বিবাহিত জীবনে কাজের জন্য সর্বমোট ৫০ হাজার ইউয়ান দেওয়ার আদেশ দেন আদালত। অর্গানাইজেশন ফর ইকোনমিক কো-অপারেশন অ্যান্ড ডেভলপমেন্টের (ওইসিডি) মতে, চীনের নারীরা প্রতিদিন বিনা পারিশ্রমিকে গৃহকর্মের কাজে প্রায় চার ঘণ্টা ব্যয় করেন, পুরুষের তুলনায় যা প্রায় আড়াই গুণ বেশি।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ভিপি নুরের বিলাসী জীবন!

    ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯

    আর্কাইভ

    সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আমরা

  • You cannot copy content of this page