• শিরোনাম

    করোনা ভাইরাস আতঙ্কে দিল্লির সব প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ

    মানচিত্র ডেস্ক | ০৫ মার্চ ২০২০ | ২:৩৮ অপরাহ্ণ

    করোনা ভাইরাস আতঙ্কে দিল্লির সব প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ

    ছবি-সংগৃহীত

    করোনা ভাইরাসের কারণে আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত সমস্ত প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দিল্লি সরকার। দিল্লির উপ-মুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়া বৃহস্পতিবার ওই তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, অন্যদের জন্য নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

    মণীশ সিসোদিয়া বলেন, ‘বাচ্চাদের মধ্যে কোভিড-১৯ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে সমস্ত প্রাথমিক বিদ্যালয়কে (সরকারি/সহায়তাপ্রাপ্ত/বেসরকারি/এমসিডি/এনডিএমসি) ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

    বিশ্বের অনেক দেশের পরে ধীরে ধীরে ভারতেও করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে। ভারতে এখনও পর্যন্ত মোট ৩০ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। একই সময়ে, করোনার ভাইরাস (সিওভিআইডি-১৯) এর ঝুঁকির প্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড (সিবিএসই) দশম এবং দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষায় অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা কেন্দ্রগুলোতে মাস্ক এবং হ্যান্ড স্যানিটাইজার নিয়ে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

    গত ১৫ ফেব্রুয়ারি সিবিএসই পরীক্ষা শুরু হয়েছে। দশম বোর্ডের পরীক্ষা ২০ মার্চ পর্যন্ত চলবে। দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ডের পরীক্ষা ৩০ মার্চ পর্যন্ত চলবে।

    দিল্লির উপ-মুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়া জানান, যেসব বিদ্যালয়ের পরীক্ষা চলছে, তাদের জন্য নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

    অন্যদিকে, করোনা উদ্বেগের আঁচ পড়েছে সংসদেও। রাজ্যসভায় কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন আশ্বস্ত করে বলেছেন, ‘আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই। প্রধানমন্ত্রী নিজে গোটা বিষয়টি তদারকি করছেন। আমি নিজেও প্রতিদিন পর্যালোচনা করছি।’ এর পাশাপাশি করোনা নিয়ে একটি মন্ত্রিগোষ্ঠী গঠন করা হয়েছে। তাঁরাও গোটা পরিস্থিতির উপরে নজর রাখছেন।

    দেশের মধ্যে একসঙ্গে করোনা আক্রান্ত সবচেয়ে বেশি ইটালির পর্যটকদের একটি দল। ইতালির পর্যটক দলের আক্রান্ত ১৬ জনের মধ্যে ১৪ জনকে গুরুগ্রামের হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। তাদের সম্পূর্ণ আলাদা একটি ঘরে রাখা হয়েছে। হাসপাতালের অন্য কোনও অংশের সঙ্গে ওই জায়গার যোগ নেই। তাদের চিকিৎসায় একটি মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়েছে।

    ভারত–ইইউ শীর্ষ সম্মেলন স্থগিত

    এদিকে, করোনা ভাইরাস আতঙ্কের জেরে চলতি মাসের শেষের দিকে ব্রাসেলসে হতে চলা ভারত–ইইউ শীর্ষ সম্মেলন সাময়িকভাবে স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে। আজ (বৃহস্পতিবার) ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ওই তথ্য জানিয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবীশ কুমার বলেন, উভয়পক্ষের সম্মতিতে সিদ্ধান্ত হয়েছে বছরের অন্য সময়, দু’পক্ষের সুবিধামতো ওই শীর্ষ সম্মেলন হবে। ওই সম্মেলনে যোগ দেওয়ার কথা ছিল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির।

    মার্চের দ্বিতীয় সপ্তাহেই ব্রাসেলস গিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিদের সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন এবং কাশ্মিরের বর্তমান পরিস্থিতি বোঝানোর কথা ছিল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। কিন্তু, করোনা আতঙ্কের জেরে ওই বৈঠক স্থগিত হয়ে গেল। পরবর্তীতে কবে ওই বৈঠক হবে এনিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে কিছু জানানো হয়নি। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবীশ কুমার জানিয়েছেন, দু’দেশের স্বাস্থ্য দপ্তরই মনে করছে, এই মুহূর্তে কোনোরকম বিমান সফর ঠিক হবে না। সেই পরামর্শ মেনেই প্রধানমন্ত্রীর সফর বাতিল করা হয়েছে। সূত্র: আইআরআইবি।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ভিপি নুরের বিলাসী জীবন!

    ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯

    আর্কাইভ

    সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আমরা