• শিরোনাম

    করোনা ভাইরাস আতঙ্কে ওমরাহ হজ পুরোপুরি বন্ধ

    মানচিত্র ডেস্ক | ০৪ মার্চ ২০২০ | ২:২২ অপরাহ্ণ

    করোনা ভাইরাস আতঙ্কে ওমরাহ হজ পুরোপুরি বন্ধ

    বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস আতঙ্কে বিদেশি নাগরিকদের জন্য স্থগিত করার পর এবার নিজ দেশের নাগরিক ও বাসিন্দাদের জন্য ওমরাহ হজ পালন এবং মসজিদে নববিতে ভ্রমণ সাময়িকভাবে স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছে সৌদি আরব। করোনাভাইরাস যাতে ছড়িয়ে না পড়ে,সেজন্য সতর্কতা হিসাবে এই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম।

    সৌদি প্রেস এজেন্সির বরাতে বুধবার বার্তা সংস্থা রয়টার্স ও আরব গণমাধ্যম ‘মিডল ইস্ট আই’ এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায়। খবরে বলা হয়, সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সাময়িকভাবে এসব নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। করোনার ভয়াবহতা নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করা হবে। যখন করোনায় ভয়াবহতা কমে আসবে, তখন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হবে। এ ক্ষেত্রে কোনো নির্দিষ্ট সময়ের কথা উল্লেখ করেনি দেশটি।

    গত সোমবার দেশটিতে করোনাভাইরাসে (কোভিড-নাইনটিন) আক্রান্ত প্রথম রোগী পাওয়ার পর এ ঘোষণা দিলো দেশটির সরকার। এর আগে করোনা প্রতিরোধে গত সপ্তাহেই বিদেশি নাগরিকদের জন্য মক্কা ও মদিনায় ওমরাহ পালন ও ধর্মীয় সব কর্মকাণ্ড বন্ধের বিরল ঘোষণা দেয় সৌদি আরব। ওমরাহ হজ করার জন্য জমা নেয়া অর্থ এজেন্সির মাধ্যমে ফেরত দেয়া হবে বলেও জানানো হয়েছে।

    এছাড়া পর্যটন ভিসা থাকা সত্ত্বেও করোনাভাইরাস ধরা পড়েছে এমন এলাকা থেকে আসা বিভিন্ন দেশের নাগরিকদের সৌদি আরবে প্রবেশ না করতে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। তবে এক্ষেত্রে নির্দিষ্ট করে দেশগুলির নাম উল্লেখ করা হয়নি।

    মক্কায় ওমরাহ বন্ধ করার পাশাপাশি পবিত্র নগরী মদিনায়ও প্রবেশ বন্ধ করা হয়েছে। মক্কা এবং মদিনা হচ্ছে ইসলামের অনুসারীদের কাছে সবচেয়ে পবিত্র দুটি স্থান। ইসলামের নবি মুহাম্মদের জন্ম মক্কা নগরীতে। আর তাঁর কবর মদিনা শহরে। তাই মদিনায়ও প্রচুর মুসলমান ভ্রমণ করেন ধর্মীয় কারণে। এদিকে সৌদিতে যে নাগরিক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তিনি কিছুদিন আগে ইরান ভ্রমণ করেছিলেন। মধ্যপ্রাচ্যে ইরানেই সবচেয়ে ব্যাপকভাবে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঘটেছে। ইরানে এ পর্যন্ত ৯২জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত দুই হাজার ৯২২ জন।

    বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯)। ইতোমধ্যে ৭০টিরও বেশি দেশে করোনার অস্তিত্ব শনাক্ত হয়েছে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রতিনিয়ত বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। প্রাণঘাতী হয়ে ওঠা এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে তিন হাজার ২০২ জনে। অপরদিকে ৫০ হাজারের বেশি মানুষ চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। বিশ্বে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯৩ হাজার ১৫৮।

    প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে শুধুমাত্র চীনের মূল ভূখণ্ডেই আক্রান্ত হয়েছেন ৮০ হাজার ২৭০ জন। আর মারা গেছেন ২ হাজার ৯৮১ জন। চীনের বাইরে সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের সংখ্যা দক্ষিণ কোরিয়ায় এবং সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছেন ইরানে। দক্ষিণ কোরিয়ায় এখন পর্যন্ত ৫ হাজার ৩২৮ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এবং মারা গেছেন ৩২ জন। ইতালিতে আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার ৫০২ এবং মৃত্যু হয়েছে ৭৯ জনের। আর ‍যুক্তরাষ্ট্রে ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে।

    জাপানে নোঙ্গর করা প্রমোদতরী ডায়মন্ড প্রিন্সেসের ৭০৬ জন যাত্রী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এবং মারা গেছেন ৬ জন। জাপানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ২৯৩ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৬ জনের। অপরদিকে, ফ্রান্সে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২১২ এবং মৃত্যু হয়েছে চারজনের। এছাড়া জার্মানি, স্পেন, সিঙ্গাপুর, কুয়েত, বাহরাইন, যুক্তরাজ্যে, মালয়েশিয়া, কানাডা, সুইজারল্যান্ডসহ ৭০টিরও বেশি দেশে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ভিপি নুরের বিলাসী জীবন!

    ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯

    আর্কাইভ

    সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আমরা