আজ রবিবার | ১৯ মে২০১৯ | ৫ জ্যৈষ্ঠ১৪২৬
মেনু

হেসে খেলে ফাইনালে বাংলাদেশ

মানচিত্র ডেস্ক | ১৩ মে ২০১৯ | ৩:৪৭ অপরাহ্ণ

ছবি-সংগৃহীত

ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে সোমবার উইন্ডিজের মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। টস জিতে আগে ব্যাট করে বাংলাদেশকে ২৪৮ রানের লক্ষ্য দেয় ক্যারিবীয়ানরা। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা হেসে খেলে সে লক্ষ্যে পৌঁছে যায়।

১৬ বল বাকি থাকতে ৫ উইকেট হাতে রেখেই ২৪৮ সংগ্রহ করে টাইগাররা। ৫ উইকেটের জয় নিয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে আবারো উইন্ডিজের মুখোমুখি হবে টিম বাংলাদেশ।

ডাবলিনের ম্যালাহাইড দ্যা ভিলেজ ক্রিকেট গ্রাউন্ডে ওয়েস্ট ইন্ডিজের দেয়া ২৪৮ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশ। মুশফিকুর রহিম (৬৩), সৌম্য সরকার (৫৪) ও মোহাম্মদ মিঠুনের (৪৩) ব্যাটে ভর করেই জয়ে পৌঁছে যায় টিম টাইগার।

ব্যাটিংয়ে নেমে তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকারের ব্যাটে দারুণ শুরু করে বাংলাদেশ। কিন্তু তামিম ইনিংস বড় করতে পারেননি। দলীয় ৫৪ রানে অ্যাশলে নার্সের বলে বোল্ড হন তিনি।

এরপর সৌম্যর সঙ্গে জুটি বাঁধেন সাকিব আল হাসান। দুজনে ভালো খেলছিলেন। কিন্তু সাকিব ব্যক্তিগত ২৯ রানে ফিরে যান। ২১তম ওভারে নার্সের বলে তিনি চেজের হাতে ক্যাচ হন। সাকিব ফিরে গেলে ওই ওভারেই ফিরেন সৌম্য সরকার। সৌম্য করেন ৫৪ রান। ওয়ানডেতে এটি তার নবম হাফ সেঞ্চুরি।

সৌম্য আউট হওয়ার পর ৮৭ রানের পার্টনারশিপ গড়েন মুশফিকুর রহিম ও মোহাম্মদ মিথুন। দলীয় ১৯০ রানে জ্যাসন হোল্ডারের বলে মিথুন বোল্ড হন। তিনি করেন ৪৩ রান। ব্রাভোর বলে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন মুশফিক। এরপর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও সাব্বির রহমান অপরাজিত থেকেই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন।

এদিন মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা ও মুস্তাফিজুর রহমানের দুর্দান্ত বোলিংয়ে স্কোর খুব বেশি বড় করতে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। টস জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ২৪৭ রান সংগ্রহ করে ক্যারিবীয়রা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওপেনার শাই হোপ দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৮৭ রান করেন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৬২ রান করেন জ্যাসন হোল্ডার। টাইগার পেসার মোস্তাফিজুর রহমান ৯ ওভারে ৪৩ রান দিয়ে ৪টি উইকেট শিকার করেছেন।

অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা ১০ ওভারে ৬০ রান দিয়ে নিয়েছেন ৩টি উইকেট। এছাড়া সাকিব আল হাসান ১টি ও মিরাজ ১টি করে উইকেট শিকার করেন।

লিগ পর্বে ওয়েস্ট ইন্ডিজের এটি ছিল শেষ ম্যাচ। এর আগে তারা তিন ম্যাচ খেলে দুইটিতে জিতে ফাইনাল নিশ্চিত করে। লিগ পর্বে আরেকটি ম্যাচ আছে বাংলাদেশের। আগামী ১৫ মে আয়ারল্যান্ডের মুখোমুখি হবে মাশরাফীর দল।

Comments

comments

x