আজ রবিবার | ১৬ ডিসেম্বর২০১৮ | ২ পৌষ১৪২৫
মেনু

টিউমার ভেবে রোগীর কিডনি কাটলেন চিকিৎসক!

মানচিত্র ডেস্ক | ১১ নভে ২০১৮ | ৩:৩৭ অপরাহ্ণ

প্রতীকি ছবি

এক মহিলা বহুদিন ধরেই ভুগছিলেন পিঠের ব্যথায়৷ এরপর তিনি চিকিৎসকের পরামর্শ নেন৷ চিকিৎসক জানান তার অপারেশন করতে হবে৷ অপারেশন করা হয়৷ কিন্তু দেখা যায় তার একটি কিডনি শরীরে নেই৷ মৌরীন পাচেকো অপারেশন পরে জানতে পারেন তার চিকিৎসক তার কিডনিকে টিউমার ভেবে কেটে ফেলে দিয়েছেন৷

এরপরেই সেই সার্জেনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেন ওই রোগিনী৷ ডঃ রামোন ভাজক্যুয়েজের দায়িত্ব ছিল ওই রোগিণীর পিঠ কেটে অংশগুলি বের করা৷ ফ্লোরিডা হাসপাতালে হয় ৫১ বছর বয়সী ওই রোগির অপারেশন৷ একটি অংশ কেটে বের করে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন সার্জন৷ তিনি মনে করেছিলেন সেটি রোগীর টিউমার৷ যেটি ছিল তার কিডনি৷

সেই পেলভিক কিডনিকেই ক্যানসারাস টিউমার ভেবে ফেলেন সার্জন৷ অ্যাবডোমেনের যেখানে কিডনি থাকার কথা পেলভিক কিডনি সেই স্থানে থাকেনা৷ এ ব্যাপারে চিকিৎসকের কোনও কিছু বলার ছিল না৷ তিনি ওই পেলভিক কিডনিটি শরীর থেকে বের করে নেন ২০১৬ সালের এপ্রিলে৷

মৌরীন জানান “উনি আমার জীবন নিয়ে নিয়ে ছিনিমিনি খেলেছেন৷ যদি তিনি এমআরআই রিপোর্টটি দেখতেন যেটা তাকে দেওয়া ছিল তাহলে তিনি বুঝতে পারতেন৷ কিন্তু সেটা তিনি দেখেননি৷”

চলতি বছরের এপ্রিল এবং সেপ্টেম্বরে ৯৬ টি রং সাইট সার্জারি রেকর্ড করা হয়েছে৷ সেই তালিকায় ভুল স্তনের বায়োপসিও রয়েছে৷ ওভারিও কেটে বাদ দেওয়া হয়েছে অপারেশন করতে গিয়ে এবং বুল দিকের কোলোনও কেটে বাদ দিয়ে দেওয়া হয়েছে৷

Comments

comments

x