আজ বৃহস্পতিবার | ১৯ জুলাই২০১৮ | ৪ শ্রাবণ১৪২৫
মেনু

টিনের কৌটায় ভর করে হাঁটে মায়া মেহরি!

মানচিত্র ডেস্ক | ০১ জুলা ২০১৮ | ২:০৮ অপরাহ্ণ

মায়া মেহরি

মেয়েটির বয়স মাত্র ৮ বছর। যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ায় গৃহহীনদের শিবিরে তাকে ঘুরে বেড়াতে দেখলে মনে হতেই পারে যে, যুদ্ধের কারণেই পা দুটি খুইয়েছে শিশুটি। কিন্তু আসলে তা নয়। আট বছরের ছোট্ট মেয়েটি জন্মেছিল পা-হীন। চিকিৎসাবিজ্ঞানের ভাষায় যাকে বলা হয় কনজেনিটাল অ্যাম্পিউটেশন।

যুদ্ধের জন্য গৃহহারা মানুষদের, সরকারের তরফ থেকেই নিয়ে যাওয়া হয় রাজধানী শহরের নানা রিফিউজি ক্যাম্পে। সিরিয়ার আলেপ্পো শহরের বাসিন্দা মায়া মেহরিকে হঠাৎ একদিন তার পরিবারের সঙ্গে নিয়ে যাওয়া হয় ইস্তাম্বুলে।

মায়ার বাবাও একই শারীরিক অক্ষমতার শিকার। তিনিই এতদিন মায়ার জন্য তৈরি করে দিতেন প্রসথেটিক পা, টিনের সঙ্গে দুই পায়ে স্পঞ্জের মতো নরম বস্তু জড়িয়ে। তার নিচে তিনি বসিয়ে দিতেন টিনের কৌটা। এর ফলে, পায়ের সঙ্গে মাটির ঘর্ষণ হতো না। মায়াও নিজের মতো ঘুরে বেড়াতে পারতো।

কিন্তু এবার দেশের সরকারই বাবা ও মেয়ের ভার কাঁধে তুলে নিয়েছে। তুরস্কের এক চিকিৎসক কালকু সংবাদসংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন, মায়ার ছবি দেখেই তিনি ঠিক করেছেন, মেয়েটির চিকিৎসার সব ভার তিনিই নেবেন। টিনের কৌটা নয় মায়ার জন্য ব্যবস্থা করবেন আসল প্রসথেটিক পায়ের।

Comments

comments

x