আজ মঙ্গলবার | ১৯ জুন২০১৮ | ৫ আষাঢ়১৪২৫
মেনু

সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় অসদুপায়, আটক ১৭

মানচিত্র ডেস্ক | ২৬ মে ২০১৮ | ২:৪৯ অপরাহ্ণ

প্রতীকি ছবি

পাবনায় সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বন করা ও সহায়তার দায়ে কলেজ অধ্যক্ষসহ ১৭ শিক্ষক-পরীক্ষার্থীকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার (২৬ মে) সকাল ১০টা থেকে পরীক্ষা চলাকালে পাবনা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার অনুজা মন্ডল তাদের আটক করেন। আটককৃতদের বিভিন্ন মেয়াদে জেল-জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এদের মধ্যে সরকারি শহীদ বুলবুল কলেজ কেন্দ্র থেকে অধ্যক্ষ ও শিক্ষকসহ আটজন, পাবনা জেলা স্কুল কেন্দ্র থেকে দুইজন, শহীদ ফজলুল হক উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে দুইজন, পাবনা ইসলামিয়া কলেজ কেন্দ্র থেকে তিনজন, ও পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট কেন্দ্র থেকে দুইজনকে আটক করা হয়।

পাবনা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ওবাইদুল হক জানান, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ পরীক্ষা পাবনার বিভিন্ন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষা চলাকালে নকল করতে সহায়তা করার অভিযোগে পাবনা সরকারি শহীদ বুলবুল কলেজ কেন্দ্র থেকে কলেজ অধ্যক্ষ রেজাউল ইসলাম, কক্ষ প্রধান একই কলেজের রসায়ন বিভাগের প্রভাষক আব্দুল হক, সুজানগরের দুলাই ডিগ্রি কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক শামীম হোসেন, আতাইকুলা আমেনা খাতুন ডিগ্রি কলেজের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক ইকবাল হোসেনকে আটক করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

এছাড়া, নকল করার দায়ে একই কলেজ কেন্দ্র থেকে আটক করা হয় চার পরীক্ষার্থীকে। তারা হল- পাবনা সদর উপজেলার কোলাদী গ্রামের নাজির উদ্দিনের ছেলে নাজমুন সাকিনমুন, পাবনা পৌর সদরের গোবিন্দা এলাকার মৃত ফজলুল করিমের ছেলে মজদুল করিম, চাটমোহর উপজেলার হরিপুর গ্রামের খলিল উদ্দিনের মেয়ে আল্পনা খাতুন, আমিনপুর থানার আনোয়ার হোসেনের ছেলে রঞ্জু মিয়া।

অপরদিকে, মোবাইল ডিভাইসসহ বিভিন্ন মাধ্যমে নকল করার দায়ে শহরের চারটি কেন্দ্র থেকে নয় পরীক্ষার্থীকে আটক করা হয়েছে। এরমধ্যে জেলা স্কুল থেকে আটককৃত দুইজন হলো- সদর উপজেলার পার গোবিন্দপুর গ্রামের রেজাউল করিমের স্ত্রী মুন্নী খাতুন, আতাইকুল থানার বিলকুলা গ্রামের ফিরোজ উদ্দিনের স্ত্রী শাহনাজ পারভীন।

শহীদ ফজলুল হক পৌর উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে আটককৃত দুইজন হলো- ফরিদপুর উপজেলার বালুঘাটা গ্রামের সেকেন্দার আলীর ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান, সুজানগর উপজেলার নোয়াপাড়া গ্রামের শামসুল আলমের মেয়ে ফারজানা আক্তার।

ইসলামিয়া কলেজ কেন্দ্র থেকে আটককৃত তিনজন হলো- বেড়া উপজেলার পাচুরিয়া গ্রামের আব্দুর রহমানের মেয়ে সায়মা আক্তার, আতাইকুলা থানার দুবলিয়া পুরাতনপাড়া গ্রামের আব্দুল হামিদের মেয়ে সামিয়া আক্তার, সুজানগরের মাসুদ আলী মিয়ার মেয়ে মৌসুমী আক্তার।

পলিটেকনিক্যাল ইন্সটিটিউট কেন্দ্র থেকে আটককৃত দুইজন হলো- সুজানগর উপজেলার বনকোলা গ্রামের বাহের উদ্দিনের স্ত্রী বিউটি খাতুন ও পাবনা পৌর সদরের কৃষ্ণপুর মহল্লার সাইদুর রহমানের স্ত্রী আফরোজা বুলবুল।

Comments

comments

x