আজ মঙ্গলবার | ১৪ আগস্ট২০১৮ | ৩০ শ্রাবণ১৪২৫
মেনু

দাদার কবরের পাশে চিরনিদ্রায় শায়িত মুক্তামনি

মানচিত্র ডেস্ক | ২৩ মে ২০১৮ | ৩:৪৯ অপরাহ্ণ

দাদার কবরের পাশেই দাফন করা হলো বিরল রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া শিশু মুক্তামনিকে। বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে জানাজা শেষে তাকে দাফন করা হয়। এসময় মুক্তামণির বাবা-মাসহ সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা ও প্রতিবেশীদের কান্নায় ভারি হয়ে ওঠে পরিবেশ।

বুধবার সকাল ৮টায় সদর উপজেলার কামারবায়সা গ্রামের নিজ বাড়িতে মুক্তামনির মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছেন তার বাবা ইব্রাহিম হোসেন। সাতক্ষীরা সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবু, সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের আরএমও ডা. ফরহাদ জামিলসহ স্থানীয় গ্রামবাসী জানাজায় অংশ নেন।

এর আগে মুক্তামনিকে শেষবারের মতো দেখতে আসেন সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার (এসপি) সাজ্জাদুর রহমান, স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক শাহ আব্দুল সাদী ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মেরিনা আক্তার। মুক্তামনি কয়েকদিন ধরে জ্বরে আক্রান্ত ছিল। তার অস্ত্রোপচার হওয়া হাত থেকে দুর্গন্ধ বের হচ্ছিলো। কথা বলতেও পারছিলো না শিশুটি। মুক্তামনির ক্ষতস্থানে আবার পচন ধরেছিলো। আক্রান্ত ডান হাত থেকে বেরিয়ে আসছিলো সাদা সাদা পোঁকা আর রক্ত।

এ মৃত্যু কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছেন না মুক্তামনির বাবা ইব্রাহিম হোসেন ও তার মা আসমা খাতুনসহ এলাকাবাসী। কান্নায় ভেঙে পড়েছেন আত্মীয়-স্বজনসহ প্রতিবেশীরাও। মুক্তামনির বাবা ইব্রাহিম হোসেন শোকার্ত কষ্ঠে বলেন, মুক্তামনিকে বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও চেষ্টা করেছেন। এমন কোনো কিছু নেই যা সরকার করেনি। আমি সবার প্রতি কৃতজ্ঞ। এখন মুক্তামনির মাগফিরাত কামনা ছাড়া আমার আর কিছুই চাওয়ার নেই।

এদিকে, মুক্তামনির মৃত্যুতে শোক প্রকাশ ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন সংসদ সদস্য ডা. আফম রুহুল হক, মীর মোস্তাক আহমেদ রবি, মুস্তফা লুৎফুল্লাহ, এসএম জগলুল হায়দার, মিসেস রিফাত আমিন, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইফতেখার হোসেন, জেলা পুলিশ সুপার মো. সাজ্জাদুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনসুর আহমেদ, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ পরিচালক শাহ্ আব্দুল সাদী, ৩৩বিজিবি’র অধিনায়ক লে. কর্ণেল মুস্তাফিজুর রহমান, সিভিল সার্জন ডা. তাওহীদুর রহমান, সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ বিশ্বাস সুদেব কুমার, নেজারত ডেপুটি কালেক্টর মোশারেফ হোসাইন, সাতক্ষীরা পৌরসভার মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতি, বিআরটিএ সাতক্ষীরা সার্কেলের সহকারী পরিচালক তানভীর আহমেদ চৌধুরী, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবু, উপজেলা নির্বাহী অফিসার তহমিনা খাতুন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বারীসহ অন্যান্যরা।

Comments

comments

x