আজ মঙ্গলবার | ১৯ জুন২০১৮ | ৫ আষাঢ়১৪২৫
মেনু

প্রেমে প্রত্যাখ্যাত হয়েই স্কুলে গুলি চালায় টেক্সাসের খুনি!

মানচিত্র ডেস্ক | ২১ মে ২০১৮ | ২:০১ অপরাহ্ণ

ছবি- সংগৃহীত

তার মেয়ের কাছে প্রেমে প্রত্যাখ্যাত হয়েই স্কুলে গুলি চালিয়েছিল দিমিত্রিওজ প্যাগোরতিজ। এমনটাই দাবি করলেন টেক্সাসের হিউস্টন কাউন্টির সান্টা এফই শহরের সান্টা এফই হাই স্কুলের মৃত ছাত্রী, ১৬ বছরের শানা ফিশারের মা স্যাডি রডরিগেজ।

স্যাডির দাবি, গত চার মাস ধরে শানাকে প্রেম নিবেদন করছিল দিমিত্রিওজ। কিন্তু বারবার প্রত্যাখ্যান করছিল শানা। অবশেষে দু’‌সপ্তাহ আগে ক্লাসে সবার সামনে তাকে অপমান করে শানা। তার ঠিক এক সপ্তাহ পরই স্কুলে ঢুকে গুলি চালিয়ে শানা সহ ৮ জন ছাত্রছাত্রী এবং দু’‌জন শিক্ষককে হত্যা করে ১৭ বছরের দিমিত্রিওজ।

যাদের উপর সে গুলি চালিয়েছিল, তারা তাকে নানাভাবে উত্যক্ত করত বলে তাদেরকে সে অপছন্দ করত বলেও দাবি করেছেন স্যাডি। পুলিস স্যাডির দাবিকে নস্যাৎ করে বলেছে দিমিত্রিওজের সহপাঠীদের জিজ্ঞাসা করে তারা জেনেছে, কখনওই কেউ তাকে উত্যক্ত করেনি।

সে খুব শান্ত স্বভাবের ছাত্র ছিল। স্কুলের ফুটবল টিমের সদস্য ছিল সে। তারাও একই কথা বলেছে বলে তার সম্পর্কে। তবে ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিস এটাও বলেছিল, দিমিত্রিওজ কলাবিভাগের ক্লাসে ঢুকে গুলি চালিয়েছিল। শানা ওই বিভাগেরই ছাত্রী ছিল। প্রথমেই সে শানাকে হত্যা করে।

তবে এখনও পুলিস নিশ্চিত নয়, কেন এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে দিমিত্রিওজ। তাকে জেরা করেও কিছু জানা যাচ্ছে না। টেক্সাসের গভর্নর গ্রেগ অ্যাবট বলেছেন, গুলি চালানোর পর নিজে আত্মহত্যা করতেও চেয়েছিল দিমিত্রিওজ, কিন্তু তার সাহস হয়নি।

যে পিস্তল এবং শটগান দিয়ে সে গুলি চালায় সেগুলি তার বাবার এবং বৈধ লাইসেন্সও আছে তাঁর কাছে। প্যাগোরতিজ পরিবার বলেছে, তারা এই ঘটনায় শোকগ্রস্ত। কেন দিমিত্রিওজ একাজ করল তারা বুঝতে পারছে না।

তবে পুলিশকে তদন্তে সবরকম সাহায্য করবে বলে আশ্বস্ত করেছে তারা। গত শুক্রবারের ওই ঘটনার জন্য সোমবার এবং মঙ্গলবারও টেক্সারের সব স্কুল বন্ধ থাকছে।

Comments

comments

x