আজ সোমবার | ২১ মে২০১৮ | ৭ জ্যৈষ্ঠ১৪২৫
মেনু

যুক্তরাষ্ট্রে নাইট ক্লাবে পাগড়ি পরায় নিগ্রহের শিকার শিখ যুবক

মানচিত্র ডেস্ক | ১১ মার্চ ২০১৮ | ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ

ছবি- সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের নটিমহামশায়ারের ম্যানসফিল্ডের নাইটক্লাব বারে পাগড়ি পরার অপরাধে ভারতীয় বংশোদ্ভুত এক শিখ ধর্মালম্বী যুবককে নিগ্রহের শিকার হতে হয়েছে। মাথায় পাগড়ি পরে অমরিক সিং(‌২২)‌ নামে ওই আইনের ছাত্র নাইটক্লাবে ঢুকে ছিল। ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার। এ সময় তাকে টেনে হিঁচড়ে নাইট ক্লাব থেকে বের করে দেয়া হয় বলে অভিযোগ।

এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়লেও নাইটক্লাবের পক্ষ থেকে বলা হয় এখানে মাথায় পাগড়ি পড়ে ঢোকার নিয়ম নেই।

অমরিক গণমাধ্যমকে বলেন, ‘নাইটক্লাবের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা বাউন্সারদের বোঝাবার চেষ্টা করা হয়েছিল। তাদের বলা হয় এই পাগড়ি ধর্মীয় কারণে পড়তে হয়। তাছাড়া পাগড়ি পড়লে মাথা নিরাপদ থাকে। কিন্তু এইসব কথা বোঝানো যায়নি। পরিবর্তে বন্ধুদের সামনেই টেনে হিঁচড়ে নাইটক্লাব থেকে বের করে দেওয়া হয়।’

তিনি বলেন, ‘‌আমাকে মাথা থেকে পাগড়ি খুলে ফেলতেও বলা হয়েছিল। আমি তা খুলতে অস্বীকার করি এবং বোঝাই পাগড়ি পড়া আমার ধর্মে রয়েছে। এটা খোলা সম্ভব নয়। তখনই আমাকে টেনে হিঁচড়ে বের করে দেওয়া হয় নাইটক্লাব থেকে। এই ঘটনায় আমি বিস্মিত। কারণ আমার পূর্বপুরুষরা ব্রিটিশ আর্মির হয়ে যুদ্ধ করেছিলেন। আমি ব্রিটেনেই জন্মেছি। এখানে নটিমহাম ট্রেন্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে আইনের শেষ বছরের ছাত্র। তাই এই ঘটনা মেনে নিতে না পেরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘটনাটি পোস্ট করি।’‌

সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে গোটা ঘটনা চাউর হতেই নাইটক্নাব কর্তৃপক্ষ ক্ষমা চেয়েছেন অমরিকের কাছে। আর ঘটনার তদন্ত করে সংশ্লিষ্ট কর্মীকে সাসপেন্ডও করা হবে বলেও জানিয়েছেন।

 

Comments

comments

x