আজ সোমবার | ১৮ জুন২০১৮ | ৪ আষাঢ়১৪২৫
মেনু

স্ত্রী-সন্তানদের সামনে মারা গেলেন আবদুল মজিদ

পাবনা প্রতিনিধি | ০৯ মার্চ ২০১৮ | ১:৫৫ অপরাহ্ণ

প্রতীকি ছবি

স্ত্রী ও দুই সন্তানের চোখের সামনে ট্রেনে কাটা পড়ে মারা গেলেন আবদুল মজিদ (৫০) নামে এক ব্যক্তি।

বৃহস্পতিবার দিনগত রাত দেড়টার দিকে ঘটনাটি ঘটেছে পাবনার চাটমোহর রেলস্টেশনে। মর্মান্তিক এ ঘটনায় সবাই হতবিহ্বল হয়ে পড়ে।

আবদুল মজিদ রংপুর জেলার বদরগঞ্জ উপজেলার গোপীনাথপুর সরকারপাড়া গ্রামের মৃত আকবর হোসেনের ছেলে।

জানা গেছে, স্ত্রী ও দুই মেয়েকে সঙ্গে করে ঢাকা থেকে দিনাজপুর গামী আন্তঃনগর দ্রুতযান এক্সপ্রেস ট্রেনে চড়ে রংপুর যাচ্ছিলেন আবদুল মজিদ। রাত দেড়টার দিকে রাজশাহী থেকে ঢাকাগামী আন্তঃনগর ধুমকেতু এক্সপ্রেস ট্রেনটিকে ক্রসিং দেয়ার জন্য দ্রুতযান এক্সপ্রেস চাটমোহর রেলষ্টেশনের ২ নং প্লাটফর্মে যাত্রা বিরতী করে। এরমধ্যে আবদুল মজিদ ট্রেন থেকে নেমে ১নং প্লাটফর্মে যান চা পানের জন্য।

ইতিমধ্যে ধুমকেতু এক্সপ্রেস ট্রেনটি ১ নং প্লাটফর্মে ঢুকে পড়লে তিনি ষ্টেশন থেকে নেমে দৌঁড়ে অপর প্রান্তে দাঁড়ানো ট্রেনে ওঠার চেষ্টা করলে ধুমকেতু ট্রেনের ধাকায় নিচে পড়ে যান। এতে তার দুই পা দ্বি-খন্ডিত হয় এবং মাথা সহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় রক্তাক্ত জখম হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান।

চোখের সামনে এভাবে মারা যাওয়ার দৃশ্য দেখে আবদুল মজিদের স্ত্রী ও দুই মেয়ে বারবার মূর্চ্ছা যাচ্ছিলেন। এ সময় রেলষ্টেশন এলাকায় এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে চাটমোহর রেলস্টেশন মাষ্টার মাসুম আলি খান বলেন, রাতেই নিহতের পরিবার লাশ নিয়ে বাড়ির উদ্দেশ্যে চলে গেছেন। ঘটনাটি আমি সিরাজগঞ্জ জিআরপি থানা পুলিশকে অবহিত করেছি।

Comments

comments

x