আজ সোমবার | ২০ নভেম্বর২০১৭ | ৬ অগ্রহায়ণ১৪২৪
মেনু

গাইবান্ধায় চুরির অপরাধে গাছে বেঁধে শিশু নির্যাতন

মানচিত্র ডেস্ক | ০৫ নভে ২০১৭ | ১:৫৬ অপরাহ্ণ

গাইবান্ধা ছবি- সংগৃহীত

টাকা চুরির অপবাদে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার সর্বানন্দ ইউনিয়নের রামভদ্র কদমতলা গ্রামের এক মুরগির খামারের নয়ন (১২) নামে এক শিশুকে নির্যাতন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই অভিযোগে খামার মালিক কবির হোসেনসহ তার সহযোগী অপর তিনজনের নামে সুন্দরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। আসামিরা বর্তমানে পলাতক রয়েছে।

শিশু নয়নের মা নুরজাহান বেওয়ার অভিযোগ করেন, বাবা মারা যাওয়ার পর সংসারে অভাব-অনটনের কারণে ৫/৬ মাস আগে খামারে কাজ নেয় তার ছেলে। খামার থেকে ১০ হাজার টাকা চুরি হয়েছে দাবি করে শনিবার সকাল থেকে দিনভর তার ছেলেকে আটকে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করেন খামারের মালিক কবির হোসেন।

এরপর চুরির অপবাদে শনিবার সন্ধ্যায় খামারের পেছনে একটি গাছের সঙ্গে দু’হাত বেঁধে নয়নকে মারধর করে। এক পর্যায়ে শিশুটির ডান হাতের আঙুলে পিন ঢুকিয়ে দেয় খামারের মালিক কবির ও তার লোকজন। নুরজাহান বেওয়া আরও জানান, মারধর করার পর কবির হোসেনের উঠানে নয়নকে ফেলে রাখা হয়। পরে তিনি অসুস্থ ছেলে নয়নকে হাসপাতালে নিয়ে যান।

সুন্দরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. ইয়াকুব আলী মোড়ল বলেন, শিশুটির শরীরের বিভিন্ন জায়গায় মারাত্মক জখম ও গুরুতর আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এমন নির্যাতনের ফলে শিশুটি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। তার চিকিৎসার জন্য সব ধরনের সহযোগিতা করা হচ্ছে বলে তিনি জানান।

রোববার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে নির্যাতিত শিশুটির চিকিৎসার খোঁজখবর নেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম গোলাম কিবরিয়া। তিনি বলেন, শিশু নির্যাতনসহ সব ধরনের নির্যাতনের বিরুদ্ধে উপজেলা প্রশাসন তৎপর রয়েছে। তিনি আইনগত সহায়তার আশ্বাস দেন। সুন্দরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আতিয়ার রহমান বলেন, আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান চলছে।

Comments

comments

x