আজ সোমবার | ২০ নভেম্বর২০১৭ | ৬ অগ্রহায়ণ১৪২৪
মেনু

যুক্তরাষ্ট্রে জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়তে হচ্ছে বিমান যাত্রীদের

মানচিত্র নিউজ | ০৪ নভে ২০১৭ | ২:১১ অপরাহ্ণ

যুক্তরাষ্ট্র বিমানবন্দর প্রতীকি ছবি

নতুন নিয়ম কার্যকর হওয়ার পর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বিমানবন্দরগুলোতে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হতে হচ্ছে বিমান যাত্রীদের। গত ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে দেশটির নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে মার্কিন প্রশাসন কঠোর নির্দেশ জারি করেন। এছাড়াও সম্প্রতি ট্রাক চাপা দিয়ে হত্যা ও শপিংমলে হত্যাকান্ডের ঘটনাগুলোর পর থেকে সব কিছুই কঠোর নজরদারির মধ্যে আনা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রগামী যাত্রীদের বিমানবন্দরে উড়োজাহাজে ওঠার আগে চেক ইন পয়েন্ট বা বোর্ডিং গেইটে জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়তে হচ্ছে যাত্রীদের।

এরআগে তুরস্ক, মধ্যপ্রাচ্য ও আফ্রিকার কিছু বিমানবন্দর থেকে যুক্তরাষ্ট্র প্রবেশের ক্ষেত্রে ল্যাপটপ ও অন্যান্য ইলেকট্রনিক পণ্য পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। মার্চে এই নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ার পর জুলাইয়ে আবার তা তুলে নেয়া হয়, জারি করা হয় নতুন নিরাপত্তা নীতি। এরপর এয়ারলাইন্সগুলোকে ১২০ দিনের সময় বেঁধে দেয়া হয় নতুন নিরাপত্তার শর্ত পূরণে। সেই সময়সীমাই শেষ হচ্ছে আজ।

এয়ারলাইন্স ফর আমেরিকার একজন মুখপাত্র ভন জেনিংস বলছেন, নিরাপত্তা বৃদ্ধির লক্ষে হোমল্যান্ড সিকিউরিটি ডিপার্টমেন্টের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে এয়ারলাইনগুলো। ভ্রমণকারীদের উপর প্রভাব যতটা কম সে করে সেটা করা যায় সে চেষ্টা করা হচ্ছে। দুবাইভিত্তিক এমিরেটস এয়ারলাইন্স তাদের যাত্রীদের হাতে অতিরিক্ত সময় নিয়ে বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পরামর্শ দিয়েছেন।

এজিপ্টএয়ারও যাত্রীদের কিছু পরামর্শ দিয়েছে। অন্যান্য এয়ারলাইনগুলোও একই পথে যাচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছে। গেল ২৮ জুন নিয়মটির কথা জানিয়েছিল হোমল্যান্ড সিকিউরিটি। তখন তারা বলেছিল, আরও নিখুঁতভাবে বিস্ফোরক শনাক্তে এ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। ১০৫টি দেশের ২৮০টি বিমানবন্দর থেকে ১৮০টি এয়ারলাইন্সে যুক্তরাষ্ট্রগামী যাত্রীদের জন্য নতুন এ নিয়ম প্রযোজ্য হচ্ছে। প্রতিদিন ২ হাজার উড়োজাহাজে ৩ লাখ ২৫ হাজার মানুষ যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করেন।

 

Comments

comments

x