আজ বুধবার | ২২ নভেম্বর২০১৭ | ৮ অগ্রহায়ণ১৪২৪
মেনু

পাবনায় দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ৭

পাবনা প্রতিনিধি | ২৯ অক্টো ২০১৭ | ১:২৮ অপরাহ্ণ

পাবনা

পাবনা-ঢাকা মহাসড়কের সাঁথিয়া উপজেলার বহলবাড়িয়া নামক স্থানে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে মহিলাসহ সাতজন নিহত এবং কমপক্ষে ৪০ আহত হয়েছেন। রোববার দুপুর ১টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এ পর্যন্ত পাঁচজনের নাম-পরিচয় পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে রয়েছেন- সাঁথিয়ার বৃহস্পতিপুর গ্রামের মকবুলের ছেলে আবুল কালাম আজাদ (৩৭), পাবনা সদরের ভাঙাবাড়িয়ার সোবাহানের ছেলে লিটন (৪০), সুমি ট্যাভেলসের ড্রাইভার রিপন (৫০), গাজীপুর সদর উপজেলার মৃত গফুরের ছেলে আয়েত আলী বিশ্বাস (৬০) এবং কাওসার (৩৮)।

পাবনার অতিরিক্তি পুলিশ সুপার গৌতমকুমার বিশ্বাস জানান, পাবনা থেকে সুমী পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাস কাশিনাথপুরের দিকে যাচ্ছিল। সাঁথিয়ার বহলবাড়িয়া নামক স্থানে বাসটি পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা শাহ-নকিব পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে এর মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই বাসের পাঁচজন এবং হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও দুই যাত্রী নিহত হন।

খবর পেয়ে পুলিশ ও দমকল বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতদের লাশ উদ্ধার এবং আহতদের উদ্ধার করে সাঁথিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পাবনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়। দুর্ঘটনার পর মহাসড়কের দুই পাশে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে পুলিশ দুর্ঘটনাকবলিত বাস দুটিকে রাস্তা থেকে সরিয়ে নিলে প্রায় ১ ঘণ্টা পর যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

আতাইকুলা থানা ওসি মাসুদ রানা জানান, উদ্ধারকাজ শেষ হয়েছে। নিহতদের লাশ মুধাপুর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়িতে রাখা হয়েছে। নিহতদের নাম-পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে।

পাবনা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সিনিয়র স্টেশন অফিসার শেখ মো. মাহবুবুল ইসলাম জানান, হাসপাতালে নেয়ার পর মারা গেছে আহত আরও দুইজন। এ ঘটনায় আহত অন্তত ৪০ যাত্রীকে পাবনা জেনারেল হাসপাতাল ও সাঁথিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়েছে।

Comments

comments

x