আজ সোমবার | ২০ নভেম্বর২০১৭ | ৬ অগ্রহায়ণ১৪২৪
মেনু

কুমিল্লায় যমজ সন্তানের একটি রেখে পেট সেলাই, ডাক্তার শোকজ

মানচিত্র ডেস্ক | ২৬ অক্টো ২০১৭ | ১:১২ অপরাহ্ণ

পেটে যমজ সন্তানের একটি রেখেই অপারেশন সমাপ্ত, ডাক্তারকে শোকজ প্রতীকি ছবি

কুমিল্লায় দাউদকান্দির গৌরীপুরে নারীর গর্ভে যমজ সন্তানের একটি রেখেই সিজারিয়ান অপারেশন সমাপ্ত করেছেন এক চিকিৎসক। লাইফ হসপিটাল অ্যান্ড ডিজিটাল ডায়াগনস্টিক সেন্টার নামে একটি বেসরকারি হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটেছে। এ অপারেশনের কাজে জড়িত ডা. শেখ হোসনে আরা নামে ওই চিকিৎসককে শোকজ করা হয়েছে। এ ঘটনায় স্বাস্থ্য বিভাগ কর্তৃক গঠিত তিন সদস্যদের তদন্ত কমিটি বৃহস্পতিবার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করার কথা রয়েছে।

জানা যায়, গেলো ১৮ সেপ্টেম্বর জেলার হোমনা উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের আউয়াল হোসেনের গর্ভবতী স্ত্রী খাদিজা আক্তারকে দাউদকান্দি উপজেলার গৌরীপুর এলাকার লাইফ হসপিটাল অ্যান্ড ডিজিটাল ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভর্তি করা হয়। সেখানে রোগীর সিজারিয়ান অপারেশন করেন মালিগাঁও ২০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের সহকারী সার্জন ডা. শেখ হোসনে আরা।

অ্যানেসথেসিয়া প্রয়োগ করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. মঞ্জুরুল আলম। খাদিজা আক্তারের গর্ভে ২টি সন্তান থাকলেও চিকিৎসক পরীক্ষা নিরীক্ষা ছাড়াই সিজার করে ১টি সন্তান বের করার পর পেটে অপর সন্তান রেখেই অপারেশন কার্যক্রম সমাপ্ত করেন।

পরবর্তীতে দীর্ঘ এক মাস ধরে পেটে থাকা অপর সন্তানকে টিউমার মনে করে চিকিৎসার জন্য বিভিন্ন ডাক্তারের কাছে ছোটাছুটি করেন খাদিজা আক্তার। ৫-৬ দিন আগে খাদিজা আক্তার হোমনার স্থানীয় একটি ক্লিনিকে আলট্রাসনোগ্রাম করলে দেখা যায় তার পেটে টিউমার নয়, আরেকটি সন্তান রয়েছে।

রোগীর পরিবার এ বিষয়ে তাৎক্ষণিক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও ডা. শেখ হোসনে আরাকে জানান। তারা রোগীর সঙ্গে সমঝোতা করে বিষয়টি ধামাচাপার চেষ্টা করেন। কিন্তু খাদিজার মা আমেনা বেগম বিষয়টি দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও সাংবাদিকদেরকে অবহিত করেন।  আমেনা বেগম জানান, বিষয়টি জানার পর লাইফ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও ডা. শেখ হোসনে আরা দফায় দফায় রোগীর পরিবারের সঙ্গে সমঝোতার প্রস্তাব দিয়ে যোগাযোগ করেন। কিন্তু তাদের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন আমেনা বেগম।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ডা. শেখ হোসনে আরার সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, যা বলার তদন্ত কমিটির কাছে বলেছি।
দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. মো. জালাল হোসেন বলেন, এ ঘটনায় ডা. হোসনে আরাকে শোকজ করা হয়েছে। গঠন করা হয়েছে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি। বৃহস্পতিবার তদন্ত প্রতিবেদন দেয়া হবে।

Comments

comments

x