আজ মঙ্গলবার | ২৬ সেপ্টেম্বর২০১৭ | ১১ আশ্বিন১৪২৪
মেনু

অনিয়ম ঠেকাতে ছদ্মবেশে পৌর মেয়র!

মানচিত্র ডেস্ক | ২৩ আগ ২০১৭ | ২:৫৪ অপরাহ্ণ

পৌর মেয়র ছবি- সংগৃহীত

চুয়াডাঙ্গা শহরে গত কয়েকদিন ধরে মাথায় লাল টুপি,পড়নে লুঙ্গি ও মুখে গামছা পেঁচানো লোককে ঘুরতে দেখেছে অনেকেই। অনেক সময় পরিচিত কেউ চিনে ফেলায় অন্যত্র চলে গেছেন। অবশেষে পরিচয় প্রকাশ হয় তার। তিনি আর কেই নন, চুয়াডাঙ্গা পৌর সভার মেয়র ওবাইদুর রহমান চৌধুরী জিপু। চলমান উন্নয়নকাজে ঠিকাদারের অনিয়ম রুখতে নির্মাণ শ্রমিকের ছদ্মবেশে গত কয়েকদিন এমনভাবে পুরো চুয়াডাঙ্গা পৌর সভার অলি গলি ছদ্মবেশে পর্যবেক্ষণ করেছেন তিনি। গত কয়েকদিন ধরে তিনি চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার মহিলা কলেজপাড়া, হাজরাহাটি, বুজরুকগড়গড়িসহ কয়েকটি স্থানে চলমান উন্নয়নকাজ পর্যবেক্ষণ করেন। আর এমন খবর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশের পর সাংবাদিকদের নজরে আসে বিষয়টি।

চুয়াডাঙ্গা পৌরসভা সূত্রে জানা গেছে, গত ২৫ জুলাই চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকায় ২৫ কোটি ১০ লাখ টাকা ব্যয়ে কয়েকটি উন্নয়নমূলক কাজের উদ্বোধন করা হয়। তৃতীয় নগর পরিচালন ও অবকাঠামো উন্নতিকরণ প্রকল্পের অর্থায়নে এ কাজের মধ্যে রয়েছে ১৪ দশমিক ৭৬ কিলোমিটার রাস্তা উন্নয়ন, ১৫ দশমিক ১৪ কিলোমিটার ড্রেন নির্মাণ ও ১০৮টি সড়কবাতির পোল স্থাপন। ইতিপূর্বে একযোগে এত বড় কাজ চুয়াডাঙ্গা পৌরসভা করতে পারেনি।

একটি সূত্র জানায়, পৌরসভার এ উন্নয়নকাজে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার যাতে কোনো অনিয়ম করতে না পারে, সেজন্য কখনো নির্মাণ শ্রমিক কখনো রিকশাচালকের ছদ্মবেশে সম্প্রতি পর্যবেক্ষণে নামেন পৌর মেয়র ওবাইদুর রহমান চৌধুরী। তিনি জরাজীর্ণ পোশাকে গামছা দিয়ে মুখ ঢেকে শ্রমিকদের সাথে কাজে যোগ দেন। ছদ্মবেশের বিষয়টি মঙ্গলবার প্রকৃত নির্মাণ শ্রমিকরা বুঝতে পারলে বিষয়টি জানাজানি হয়।

এ বিষয়ে পৌর মেয়র ওবাইদুর রহমান চৌধুরী জানান, ‘বর্তমান সরকার দেশের উন্নয়নের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। প্রায়ই শোনা যায়, ঠিকাদারদের অনিয়মের কারণে সেসব কাজ যথাযথভাবে সম্পন্ন করা হয় না। আমার পৌর এলাকায় যাতে এ ধরনের অনিয়ম না হয়, সেজন্যই আমি ছদ্মবেশের আশ্রয় নিই।’

 

Comments

comments

x