আজ বৃহস্পতিবার | ২১ সেপ্টেম্বর২০১৭ | ৬ আশ্বিন১৪২৪
মেনু

কে হচ্ছেন জর্জিয়া যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ।। সম্মেলন ১৬ ই জুলাই

এ,এইচ রাসেল | ০৮ জুলা ২০১৭ | ১১:১৯ পূর্বাহ্ণ

jubo leage 2

বিশেষ প্রতিনিধি : সকল জল্পনা, কল্পনা আর নাটকীয়তার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বহুল  প্রতীক্ষিত জর্জিয়া স্টেট যুবলীগের সম্মেলন। ১৬ই জুলাই রবিবার লাকি সোলস পার্ক অডিটোরিয়ামের উক্ত সম্মেলনে যোগ দিতে আসছেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য জনাব নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন এমপি, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী যুবলীগের আহবায়ক একেএম তারিকুল হায়দার চৌধুরী, যুগ্ম আহবায়ক বাহার খন্দকার সবুজ সহ যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন স্টেট যুবলীগে নেতৃবৃন্দ। সম্মেলনে উপস্থিত থাকবেন জর্জিয়া আওয়ামীলীগের সভাপতি জনাব আলী হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ রহমান । জর্জিয়ার আওয়ামী রাজনীতিতে এই প্রথম যুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে অনেক ঢাক ডোল পিটিয়ে । নেতা কর্মীদের মাঝে সম্মেলন কার্যক্রমে চাঙ্গা ভাব দেখা যাচ্ছে ,যুবলীগের কমিটি গঠন নিয়ে এখানকার বাংলাদেশিদের মধ্যেও উৎসাহ উদ্দীপনা লক্ষ করা যাচ্ছে। বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন ও খোঁজ খবর রাখছে আসন্ন সম্মেলন নিয়ে ।

তবে কে হচ্ছেন সম্মেলনের মাধ্যমে নির্বাচিত প্রথম সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ? সভাপতি পদে বর্তমান আহবায়ক জনাব মোশাররফ হোসেন ছাড়াও যোগ হয়েছেন পলাশ আহমেদ নামে আর এক জন বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক এক্ষেত্রে মোশাররফ হোসেন এগিয়ে থাকলেও যুবলীগের তরুন নেতৃত্বে পলাশ আহমেদ ও কোনো ক্ষেত্রে কম জনপ্রিয় নন । তবে সাধারণ সম্পাদক কে হচ্ছেন তা নিশ্চিত করে বলা মুশকিল, এই পদে  বর্তমান আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব ও নোয়াখালী জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ – সভাপতি সাদমান সুমন ছাড়াও পছন্দের তালিকায় যুক্ত হয়েছেন সিলেট বিভাগের বাসিন্দা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক চৌকষ সোশ্যাল মিডিয়া একটিভিস্ট হাসান চৌধুরী সুহেল ,শেরপুর জেলা ছাত্র লীগের  সাবেক  নেতা তোফায়েল আহমেদ তপু ও জর্জিয়ার আওয়ামী পরিবারের সাথে সংস্লিষ্ট দীর্ঘ দিনের প্রবাসী “মানচিত্র ফাউন্ডেশনের” সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলম সাগরের নাম ও জোরে শোরে শোনা যাচ্ছে । জানা গেছে এই গুরুত্বপূর্ণ পদে যেই নির্বাচিত হোক না কেন তা নিয়ে কেউ চিন্তিত নন তবে যোগ্য ও কর্মঠ ব্যক্তি নির্বাচিত হবে এমন প্রত্যাশা সকলের ।

jubo ligপ্রায় দশ বছর পূর্বে বিলুপ্ত হওয়া জর্জিয়া যুবলীগের সাবেক সভাপতি বাবু রমেশ সাহা ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মুরাদের নেতৃত্বের পর জর্জিয়া যুবলীগ কে দীর্ঘ দিন ধরে কেউ পুনঃগঠিত করতে পারে নি। যুব লীগের সেই খরা কাটিয়ে তরুণ নেতারা সক্রিয় হয়ে উঠেছে যা যে কোনো সময়ের চেয়ে চোখে পড়ার মতো । এ ক্ষেত্রে নেপথ্যে মূল ভূমিকা পালন করেছে জর্জিয়া আওয়ামীলীগ । জর্জিয়ার আওয়ামী পরিবারে যুবলীগের এই কমিটি জর্জিয়ার সকল যুবলীগের কর্মী সমর্থকদের নিয়ে একত্রে কাজ করে যাবে আর অদুর ভবিষ্যতে জর্জিয়ার আওয়ামী পরিবারে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখবে বলে অনেকেই মনে করছেন।

Comments

comments

এই বিভাগের আরও খবর
x