আজ রবিবার | ১৯ নভেম্বর২০১৭ | ৫ অগ্রহায়ণ১৪২৪
মেনু

আমিরাতে কোরান প্রতিযোগীতায় প্রথম চট্টগ্রামের লাবিবা

মানচিত্র ডেস্ক | ১১ জুন ২০১৭ | ২:৫১ অপরাহ্ণ

লাবিবা

সংযুক্ত আরব আমিরাতের সৈয়দ আহাদ ফাউন্ডেশন আয়োজিত তেলোয়াতে কোরান প্রতিযোগীতায় হিফজুল কোরান বিভাগে প্রথম স্থান ছিনিয়ে নিল চট্টগ্রামের মেয়ে লাবিবা হাফেজ। ১০ বছরের লাবিবা অসংখ্য হাফেজে কোরানকে পেছনে ফেলে প্রথম স্থান অর্জন করে নেন। উল্লেখ্য যে, প্রতিবারের মত এবারও দীর্ঘ প্রস্তুতি, বাছাই পর্ব ও বিভিন্ন রাউন্ড শেষে অনুষ্ঠিত হলো সংযুক্ত আরব আমিরাত বাংলা কমিউনিটির অন্যতম আয়োজন সৈয়দ আহাদ ফাউন্ডেশনের ‘তেলোয়াতে কোরআন প্রতিযোগিতা’।

শনিবার আমিরাতের শারজার রেডিসন ব্লু হোটেলের ৬ শতাধিক আমন্ত্রিত অতিথির সামনে লাবিবা গ্রান্ড ফাইন্যালে অসাধারন তেলোয়াতে নিজেকে বিজয়ের চুড়ায় অধিষ্ঠিত করেন। সাথে জিতে নেন সাত হাজার দিরহাম ক্যাশ ও বিভিন্ন উপহার সামগ্রী। লাবিবা চট্টগ্রাম জেলার হাটহাজারী থানার হাফেজ মাওলানা আজিজুল হকের মেয়ে। সে মা বাবার সাথে আমিরাতের আল আইনে বসবাস করেন। লাবিবার পরিবারে তিন ভাই বোনের মধ্যে সবাই হিফজুল কোরান বলে জানা যায়।

লাবিবা ছাড়া এ প্রতিযোগীতায় তেলোয়াতে কোরান ছেলেদের ক্যাটাগরীতে প্রথম স্থান অর্জন করেন মোহাম্মদ হিসাম। মেয়েদের ক্যাটাগরীতে প্রথম স্থান অর্জন করেন খাদিজা হাফেজ। হিফজুল কোরান বিভাগে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেন মহসিন মাহমুদুল, তৃত্বীয় আব্দুর রহমান, ৪র্থ সাদ্দিয়া আহলাম, ৫ম আব্দুল্লাহ মাহমুদুল।

গতকাল বিকাল তিনটা থেকে অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে সারজা রেডিসন ব্লুর ৩টি হলরুম সাজানো হয় অপূর্ব শৈলিতে। আমন্ত্রিত অতিথিদের সকলের পরিধানে ছিল সাদা পাঞ্জাবি, পায়জামা ও কেন্দুরা। বাংলাদেশি ডিজাইনার রফিকুল্লাহ গাজ্জালীর কারুকার্যে স্টেইজ থেকে নিয়ে তিনটি হলরুম ছিল শৈল্পিক আভায় শুভ্রতায় পরিপূর্ণ। সৈয়দ আহাদ ফাউন্ডেশনের কর্ণধার ক্যাপটেন সৈয়দ আবু আহাদের অতিথি পরায়ণতা ও তেলোয়াতে কোরানের প্রতি তাহার যে আন্তরিকতা তা সকলকে মুগ্ধ করেছে।  বিকাল পাঁচ টায় শুরু হয় বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ।

এ সময় আমন্ত্রিত মেহমান সারজা রাজ পরিবারের সদস্য শেখ খালেদ বিন আব্দুল্লাহ এম এম আল কাসেমী ও প্রধান অতিথি হিসেবে বাংলাদেশ নিযুক্ত দুবাইয়ের কন্সাল জেনারেল বদিরুজ্জামান, ফাউন্ডেশন চেয়ারম্যান ক্যাপটেন সৈয়দ আবু আহাদ, কো চেয়ারম্যান মাজহারুল ইসলাম মাহাবুব, ফাউন্ডেশনের সভাপতি মোস্তফা মাহামুদ, নকমিউনিটি নেতা ড. রেজা খান, বাংলাদেশ সমিতির সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন, কমিউনিটি নেতা জাকির হোসেন, ডা. নুর মোহাম্মদ মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।

ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল গনী চৌধুরীর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে দুবাইতে কন্সাল জেনারেল বদিরুজ্জামান বলেন, রমজান মাসে এ ধরনের একটি উদ্যোগ সত্যি প্রশংসনীয়। এ উদ্যোগের ফলে আমাদের প্রজন্মের মাঝে ধর্মীয় মূল্যবোধ ও শিক্ষা বিস্তৃতি লাভ করবে।

ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ক্যাপটেন সৈয়দ আবু আহাদ বলেন ফাউন্ডেশন এ আয়োজনের মধ্যদিয়ে প্রাবাসে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের মাঝে কোরানের যে আগ্রহ তৈরী করতে পেরেছে সেটাই সার্থকতা। তিনি বলেন আগামীতে প্রয়োজনে সমগ্র মিডলিষ্টে এ আয়োজনের অডিশন গ্রহণ করে সেখান থেকে শিক্ষার্থীদের চুড়ান্ত পর্বে অংশ গ্রহণের সুযোগ করে দেয়া হবে। তিনি অনুষ্ঠান সফল ও সার্থক করার জন্য সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

– কালের কন্ঠ।

 

Comments

comments

x